12 Rules For Being A Gentleman in Bengali | ভদ্রমহোদয় হওয়ার উপায়

12 Rules For Being A Gentleman in Bengali | ভদ্রমহোদয় হওয়ার উপায়

ভদ্রমহোদয় হওয়ার উপায়
12 Rules For Being A Gentleman


দুনিয়ায় নিজেকে যদি এমন একজন মানুষ তৈরী করা যায় যাকে ৮ থেকে ৮০ সব বয়সের লোকেরা সমানভাবে ভালোবাসে তাহলে সত্যিই কত ভালো হয় তাইনা | এরকম মানুষ হতে মনে মনে সবাই কিন্তু একটু আধটু চায় | তা এমন মানুষ হতে গেলে আমাদের সবাইকে কিন্তু cool এবং dude টাইপের man হওয়ার বদলে gentleman অবশ্যই হতে হবে |

বর্তমানে আজ এমনই অবস্থা যেখানে gentleman এর সংখ্যা খুবই কম | আজ অনেক কম সংখ্যক লোকের মধ্যে এই কোয়ালিটিটা বেঁচে আছে | তা একজন gentleman হতে গেলে আমাদের কি কি Rules Follow করা উচিত চলো তা একটু জেনেনি |

Rule no.1: Love Everybody

একজন gentleman এর সবথেকে বড় কোয়ালিটি হলো, যে সে তার নিজের surrounding প্রত্যেকটা মানুষকে সমানভাবে ভালোবাসতে জানে | এই ধরনের মানুষ কারোর সাথে দুর্ব্যবহার করেনা | এইসব মানুষরা basically ভীষন kind hearted হয়ে থাকে | তার কাছে কম শিক্ষিত, বেশি শিক্ষিত, উঁচু জাত, নিচু জাত এইসব কিছুই matter করেনা |

সে শুধু সবাইকে নিজের আপন মনে করে ভালোবাসতে জানে আর তাদের সাথে ভালো করে কথা বলতে জানে | তাই তুমিও যদি একজন gentleman হতে চাও তাহলে Rule no. এক অবশ্যই follow করো আজ থেকে |

Rule no.2: Respect Every Woman

Gentleman হতে গেলে মেয়েদের অবশ্যই সম্মান করতে শেখো | মেয়েদের কখনই মাল বলে ভেবোনা | আজকালকার দিনের ছেলেদের সবথেকে বড় সমস্যা হলো তারা বেশিরভাগই মেয়েদের অসম্মান করতে দুবারো ভাবেনা | অনেকে তো আবার এমন আছে যারা মেয়েদের গায়ে হাতও পর্যন্ত তোলে |

একজন সত্যিকারের gentleman কখনই এইসব জিনিস করেনা | তারা বরং এই সত্যিটা বোঝে যে, দুনিয়ায় সবার চরিত্র সমান হয়না | ভালো আর খারাপ এই দুটো মিলিয়েই আমাদের সমাজ তৈরী হয়েছে | যেই মেয়ে খারাপ বলে মনে হচ্ছে বা খারাপ ব্যবহার করছে বলে মনে হচ্ছে, তার থেকে পুরোপুরি দুরত্ব বজায় রেখে ভালো মেয়েদের সাথে সময় কাটানো উচিত বা কথা বলা উচিত আমাদের প্রত্যেকের |

কিন্তু কখনই যেরকমের ধরনের মেয়ে হোক না কেন তাকে কখনোই আর যাই হোক অসম্মান করা কখনই উচিত নয়, এই কথাটা প্রত্যেকটা gentleman-ই মেনে চলে |

Rule no.3: Avoid Negativity on Social Media

যদি একজন gentleman হতে চাও তাহলে এইসব সোশ্যাল মিডিয়ার নেগেটিভ সব কার্যকলাপ থেকে যতটা সম্ভব দুরত্ব বজায় রাখো | কারণ নেগেটিভিটি একটা ভালো মানুষকেও খারাপ মানুষে রুপান্তরিত করতে পারে খুব তাড়াতাড়ি |

যতটা সম্ভব ভালো মানুষ বা ভালো জিনিসের সাথে সময় কাটাও যাতে তোমার মাইন্ড দিনের বেশিরভাগ সময়ই positive দিকে focused থাকতে পারে | আর সবশেষে পারলে, এইসব সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম গুলোকে বেশি ব্যবহার করা কমাও |

Rule no.4: Be Open Minded

Gentleman হওয়ার পরবর্তী rules হলো Open minded হওয়া | একটা মানুষ যতবেশী ওপেন minded হবে তার সাথে তত বেশি মানুষ কথা বলতে নিজের আগ্রহ প্রকাশ করবে আর সময় কাটাতে ভালোবাসবে | কারোর থেকে কোনো কিছু শেখার সময়েও তোমার মধ্যে এই কোয়ালিটিটা থাকা অবশ্যই কিন্তু প্রয়োজন |

কারণ তুমি যদি Open minded না হও আর নিজেকেই সর্বদা জ্ঞানী গুনি ব্যক্তি মনে করো তাহলে তুমি অন্যের কাছ থেকে কোনদিনই কিছুই শিখতে পারবেনা এবং জীবনে কোনদিনই grow করতে পারবেনা | একজন gentleman সর্বদা কিন্তু অন্যের মতামত আর অন্যের কোনো বিষয়ের প্রতি নিজেস্ব দৃষ্টিকোণকে যথাযত সম্মান দিয়ে থাকে আর নিজেকে grow করতে সর্বদা মুখিয়ে থাকে |

আরো পড়ুন: সফল জীবন পাওয়ার ৪ সূত্র

Rule no.5: Learn to Say NO

একজন gentleman হতে গেলে তোমাকে কিন্তু না বলা শিখতে হবে | এখনকার বেশিরভাগ মানুষই অন্যদের না বলতে পারেনা | দেখছি বা দেখি বলে কোনো কথাকে ঝুলিয়ে রাখে | তারা বেশিরভাগই এটা ভাবে যে, আমি যদি কাউকে না বলি তাহলে সে হয়ত দুঃখ পেতে পারে” |

কথাটা ভাবা কিন্তু একদম ঠিক, তুমি যদি কাউকে না বলো তাহলে সে কিন্ত সেই মূহুর্তে তোমার তোমার উপর রাগও পর্যন্ত করতে পারে |

কিন্তু এমন মানুষকেই তো বেশিরভাগ মানুষ long term-এ বেশি পছন্দ করে | কারণ তুমিই ভাবো, আজ যদি তোমার কোনো বন্ধু তোমার কোনো কথায় “হ্যাঁ” বলার পর; শেষ মূহুর্তে এসে না বলে দেয় তাহলে তোমার কেমন লাগবে? অবশ্যই ভীষন খারাপ লাগবে তাই না | কিন্তু এমন বন্ধুর প্রতি তোমার তখন আর রাগ হবে না যে তোমাকে প্রথমেই না বলে দিয়েছে |

তাই জীবনে না বলা ভালো করে শেখো | কখনই অন্য মানুষদের নিজের কথার মাধ্যমে ঝুলিয়ে রেখো না বা মিথ্যে হ্যাঁ বলে তার মন রাখার চেষ্টা করোনা |

Rule no.6: Speak Politely

আচ্ছা, তোমার এমন কোনো মানুষকে ভালো লাগে যে কথায় কথায় ভীষন চেঁচিয়ে কথা বলে? নিশ্চই না তাইনা | একজন gentleman হতে গেলে কথাবার্তার মধ্যে politeness থাকাটা কিন্তু অত্যন্ত জরুরি | আমাদের সর্বদাই জীবনের যেকোনো পরিস্থিতিতে polite ভাবে সকলের সাথে কথা বলা উচিত | যদি তুমি সর্বদা সবার সাথে রাগ করে চেঁচিয়ে কথা বলো তাহলে তোমার জীবন থেকে সবাই একদিন চলে যাবে আর তুমি একা হয়ে যাবে পুরোপুরি |

তাই কথা বলার সময় মুখে genuine smile রেখে সবার সাথে polite ভাবে কথা বলো | দেখবে তোমার সাথে কথা বলতে সবাই interest প্রকাশ করবে |

Rule no.7: Control Your Anger

Gentleman হতে গেলে তোমাকে কিন্তু তোমার রাগের উপর কন্ট্রোল রাখতেই হবে | একজন সত্যিকারের gentle মানুষ কখনই কথায় কথায় রেগে যায়না | এইধরনের মানুষরা বেশিরভাগই শান্ত স্বভাবের হয়ে থাকে | দেখো তোমার মস্তিস্ক যদি যেকোনো পরিস্থিতিতে সর্বদা শান্ত থাকে তাহলে তুমি বাকি মানুষদের তুলনায় অনেক তাড়াতাড়ি যেকোনো সমস্যার সমাধান করতে পারবে |

যেইসব মানুষরা অতিরিক্ত রাগ করে তাদের কিন্তু খুব একটা মানুষ পছন্দ করেনা এবং তাদের সাথে বেশি কথা বলতেও স্বাচ্ছন্দ বোধ করেনা | আর এইসব মানুষরা নিজেদের রাগ করার প্রবনতার জন্য জীবনে বার বার অনেক বড় বড় ভুল করে | তাই তুমিও যদি gentleman হতে চাও তাহলে নিজের রাগকে আজ থেকেই কন্ট্রোলে আনার চেষ্টা করো |

Rule no.8: Don’t Be too Talkative

নিজের অতিরিক্ত কথা বলার বদ অভ্যাসকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব কমাও | একজন মানুষ যে অতিরিক্ত কথা বলে তার নিজেস্ব কোনো গোপনীয়তা বা ব্যক্তিগত বলে কিছুই থাকেনা | সে কোনো না কোনো ভাবে তার কথার মাধ্যমে তার গোপনীয়তা একদিন ফাঁস করবেই সবার সামনে | একজন gentleman-এর সবথেকে বড় কোয়ালিটি হলো যে, সে যেখানে যতটুকু দরকার ঠিক ততটুকুই কথা বলে | আর বেশিরভাগটাই শোনার চেষ্টা করে |

সে জানে অতিরিক্ত কথা বলার পরিনাম কি হতে পারে | তুমি যদি সারাক্ষণ খুব বেশি কথা বলো, তাহলে যেদিন তুমি কোনো সিরিয়াস কথা আলোচনা করতে যাবে সবার সাথে, তোমার সেই কথা কেউ ততটা গুরুত্ব দিয়ে শুনবে না যতটা একজন কম কথা বলা মানুষের থেকে শুনবে | তাই নিজের এই অভ্যাসকে change করো তাড়াতাড়ি |

আরো পড়ুন: অবচেতন মনের ক্ষমতা বাড়ানোর উপায়

Rule no.9: Never be Too Much Available for Someone

জীবনে যদি চাও তোমাকে সবাই ভালোবাসুক আর সম্মান করুক তাহলে একটা কথা সর্বদা মেনে চলো, কখনই কারোর জন্য খুব বেশি available হওনা | যদি তুমি সবার জন্য নিজেকে খুব বেশি available রাখো তাহলে একটা কথা জেনে রেখো একটা সময় পর তোমাকে কেউ আর তোমার প্রাপ্য মর্যাদা দেবেনা |

সবাই তোমার সুবিধা নেবে এবং তারপর তোমায় ছেড়ে চলে যাবে | আর বিশ্বাস করো তাদের বিন্দু মাত্র এটা ভেবে কোনদিনই আপশোষ হবেনা যে তুমি তাদের জন্য সর্বদা available ছিলে | একজন gentleman কিন্তু এই সত্যিটা জানে, আর তাই সে কোনদিনই কারোর জন্য অতিরিক্ত available হয় না | যতটুকু প্রয়োজন ঠিক ততটুকুই হয় তারপর আবার নিজের কাজে ব্যস্ত হয়ে পরে |

Rule no.10: Be Honest

একজন gentleman পার্সোনালিটির সবথেকে বড় বিশেষত্ব হলো, তার সৎ মনোভাবে | এইসব মানুষরা সর্বদা সৎ স্বভাবের হয়ে থাকে | তাদের কিচ্ছু এসে যায়না এটা ভেবে যে সত্যি কথা বলার পর লোকে তাদের সম্পর্কে কি ভাববে |

দেখো একটা কথা তোমায় বলে রাখি, যেই মানুষটা তোমার সৎ আচরণের জন্য তোমাকে বোকা ভাবছে আর লোকের সামনে সেইজন্য তোমায় হেও করছে, সত্যি কথা বলতে সে তোমার যোগ্যই নয় | এইসব মানুষের থেকে একদম দূরে থাকো | কারণ যেইসব মানুষরা অন্যের fake personality আর কথাবার্তায় বেশি আকৃষ্ট হয় তাদের জীবনে বড় দুঃখ আছে |

সর্বদা নিজের আচরণের মধ্যে honesty-কে বজায় রাখো | যে তোমাকে বোঝার সে তোমায় নিশ্চই বুঝবে আর যে ছেড়ে যাওয়ার সে ছেড়ে চলে যাবে |

Rule no.11: Help Everyone

একজন সত্যিকারের gentleman অন্যের সাহায্য করতে সর্বদা মুখিয়ে থাকে | সে কখনই নিজেরটা নিয়ে বেশি ভাবেনা | আমি মনে করি কোনো গরিব,দুঃখী অথবা বিপদে পড়া মানুষকে সাহায্য করে যা আনন্দ আছে তা হয়ত পৃথিবীর সবথেকে expensive জিনিস কেনার মধ্যেও নেই | তাই যতো পারো সেইসব মানুষদের সাহায্য করো যাদের সত্যিই সাহায্যের প্রয়োজন |

যদি একটা better সমাজ তৈরী করতে চাও তাহলে সর্বপ্রথম নিজের মধ্যে মানবতার ভাবকে জাগিয়ে তোলো | আর একজন gentleman এর মতোই সেইসব মানুষদের জন্য নিজের জীবনকে উৎসর্গ করে দেও পুরোপুরি |

Rule no.12: Don’t Criticize Anyone

বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষই অন্য মানুষদের নিয়ে সমালোচনা করতে বেশ ভালোবাসে | তুমি যদি তোমার আশপাশের মানুষদের একটু ভালোভাবে পর্যবেক্ষণ করো তাহলে তুমি একটা জিনিস স্পষ্ট বুঝতে পারবে যে, বেশিরভাগ মানুষ কখনই নিজেদেরকে নিয়ে মাথা ঘামায় না | তারা সবাই মনে করে তারা বেশ ভালো আর দোষ-ত্রূটিহীন ও অন্যান্য বাকি মানুষরা সঠিক স্বভাবের নয় |

দেখো, একজন সত্যিকারের gentleman কখনই লোকের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে বেশি মাথা ঘামায় না | তারা এটা বোঝে যে, দুনিয়ায় কোনো মানুষই একদম perfect নয় | সবার মধ্যেই কোনো না কোনো দোষ-ত্রূটি আছে | তাই তারা অন্যের বেপারে সমালোচনা না করে বরং নিজেদের improve করার পিছনে সর্বদা ব্যস্ত থাকে | তাই, তুমিও যদি একজন এইরকম মানুষ হয়ে থাকো, তাহলে তুমিও হলে একজন সত্যিকারের gentleman |

আরো পড়ুন: জীবনীমূলক বই পড়ার উপকারিতা


আশা করি তুমি 12 Rules For Being A Gentleman in Bengali  পড়ে নিশ্চই অনেক কিছু সুন্দর তথ্য সম্পর্কে জানতে পেরেছো | পোস্টটা ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই একটু Comment করে তোমার মতামত আমায় জানিও | তোমার মূল্যবান মতামত আমাকে বাড়তি অনুপ্রেরণা যোগাতে  ভীষনভাবে সাহায্য করে |

About the author

admin

Hi Readers I’m Bebeto Raha, a Professional Youtuber & a blogger from Kolkata. My hobby is Playing Guitar, Making Youtube Videos, Watching Films. Also I love to read any kinds of knowledgeable book written by any good author.

View all posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *