9 golden rules of buddhism

বুদ্ধের ৯ উপদেশ | 9 Buddha’s Golden Rules of Happy and Successful life

9 Buddha’s Golden Rules of Happy and Successful life

খুশি আর সফল হতে বুদ্ধের এই ৯টি উপদেশ


জীবনে সফল হতে আর আনন্দের সাথে জীবন কাটাতে কে না চায়? বর্তমানে সবাই এই দুটি জিনিসকে পেতেই দিন রাত এক করে নিজের কাজ করে চলেছে |

আসলে আমরা কিভাবে নিজের জীবনকে সফল ও আনন্দময় করতে পারি, মহাত্মা গৌতম বুদ্ধ আজ থেকে অনেক বছর আগেই এর উপায় কিন্তু বলে দিয়ে গেছেন |

তাইতো আমি তোমাদের বলবো Mahatma Buddha – এর সেই ৯টি উপদেশ যা তোমাকে সফল ও শান্তিতে থাকতে জীবনে সাহায্য করতে পারে |

9 Golden Rules of buddhism Are:

বুদ্ধের ৯ উপদেশ | 9 Buddha's Golden Rules of Happy and Successful life

ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নিন:-
Gautam Buddha – এর তাঁর প্রথম উপদেশের মাধ্যমে সবাইকে এটা বলতে চেয়েছেন যে আমাদের প্রত্যেককেই জীবনের সকল সিদ্ধান্ত অবশ্যই ভেবেচিন্তে এবং যাচাই করে তারপর নেওয়া উচিত |

কোনো জিনিসকে শুধু শোনার ভিক্তিতেই বিশ্বাস করা, অন্য কেউ বলেছে বলে তার কথার উপর ভিক্তি করে বিশ্বাস করা কিংবা নিজেদের ধর্মগ্রন্থে যা লেখা আছে সেটা ভালোভাবে যাচাই না করে বিশ্বাস করা আমাদের কখনই উচিত নয় |

সর্বদা প্রত্যেকেরই আগে সেইসব সম্বন্ধে ভালো করে চিন্তাভাবনা করা উচিত, তারপর সেটা সত্য কি মিথ্যা সেই সম্বন্ধে যাচাই করা করা উচিত | তারপরই সেটাকে বিশ্বাস করা উচিত তার আগে একদমই নয় |

যখন তোমার মনে হবে যে সেই কথাটি সত্যিই একটি ভালো কথা এবং এর দ্বারা শুধু নিজের নয় বরং প্রত্যেকের লাভ হবে তখনই সেটিকে মন থেকে গ্রহণ করা উচিত |

নির্ভয়ে এগিয়ে চলুন:
পৃথিবীতে এই দু ধরনের ভুল বেশিরভাগ মানুষই করে যার ফলে তারা জীবনে সফলতা এবং সত্য প্রাপ্তি করতে পারেনা |

আর সেই ভুলগুলির মধ্যে প্রথম কারণটি হলো, যে তারা কোনো কাজ কোনদিন শুরুই করেনা শুধু ভবিষ্যতের ভরসায় ফেলে রেখে দেয় এবং দ্বিতীয় কারণটি হলো যে তারা হয়তো কাজ শুরু করে কিন্তু সেটা বেশিদিন পর্যন্ত চালাতে পারেনা তাই মাঝপথেই হার মেনে নেয় |

এই বিষয়গুলি এমন দুই ধরনের মানুষদের দেখায় যারা শুধু নিজেদের দোষেই জীবনে কিছুই করতে পারেনা |

এই দুই ধরনের মানুষদের মধ্যে প্রথম শ্রেনীর মানুষরা শুধু নিজের ভাগ্যের ভরসায় পরে থাকে আর ভবিষ্যতের সেই বিশেষ দিনটির অপেক্ষা করতে থাকে জীবনে কোনো কিছু action না নিয়েই |

আর দ্বিতীয় শ্রেনীর মানুষরা action তো নেয় কিন্তু কাজে বিভিন্ন বাঁধার সম্মুখীন হওয়ায় তারা ভয়ে হল ছেড়ে দেয় আর বাকি জীবন শুধু পরিস্থিতির উপর দোষ দিয়েই কাটিয়ে দেয় |

তাই বুদ্ধের মতে আমাদের প্রত্যেককে জীবনে নির্ভয়ে এগিয়ে যেতে হবে | জীবনে বাঁধা আসবেই কিন্তু সেটার মোকাবিলা করতে হবে আমাদের |

কোনো বাঁধাই বেশিদিন স্থায়ী থাকেনা তাই ধৈর্য্য ধরে নিজের কাজ করে যেতে হবে এবং সেই পথে এগোতে হবে মনে সাহস রেখে |

পরিশ্রম ছাড়া কিছুই সম্ভব নয়:
বুদ্ধের মতে অলসতা ও কাজে ফাঁকি দেওয়া হলো ধ্বংসের পথে যাওয়ার সবচেয়ে সহজ ও ছোট রাস্তা | পরিশ্রমই জীবনকে ভালোভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করে |

কিন্তু মুর্খ লোকেরা বেকার সময় কাঁটাতেই ভালবাসে আর বুদ্ধিমান লোকেরা বেকারভাবে না বসে থেকে বরং পরিশ্রম করতে ভালবাসে |

দেখো; জীবনে কোনো কিছুই বিনা পরিশ্রমে achieve করা যায়না | আর যেটি বিনা পরিশ্রমে achieve যায় সেটার স্থায়িত্ব বেশিদিনের জন্য থাকেনা |

Smart work করো কিংবা hard work তোমাকে কোনো কিছু পেতে গেলে  পরিশ্রম করতেই হবে, এটাই জীবনে আসল সত্য |

Related Post:- পূজা ও মন্ত্রচারণ দ্বারা স্বর্গলাভ হয়না (গৌতম বুদ্ধের কাহিনী)

সুখী থাকতে গেলে ভালো চিন্তা করুন:
সত্যি কথা বলতে আমরা আমাদের চিন্তাধারার দাড়াই গঠিত | যেমন আমাদের চিন্তা ভাবনা হয় ঠিক তেমন প্রকারের মানুষই আমরা হই |

যখন আমাদের মন একেবারে শুদ্ধ, সৎ এবং পবিত্র হয়ে যায়, তখন প্রসন্নতা আমাদের এমন ভাবে তারা করে যেমনভাবে মানুষের নিজের ছায়া তার পিছন ছাড়েনা |

তাই জীবনে সুখী ও প্রসন্ন থাকতে হলে আমাদের মনে positive চিন্তাধারার গঠন করতে হবে সর্বপ্রথম |

যদি কোনো মানুষ একজন positive চিন্তাধারার মানুষে পরিণত হয় তাহলে সে জীবনে কঠিন পরিস্থির সময়ও আশার আলো ঠিকই খুঁজে পাবে |

বর্তমানে বাঁচতে শিখুন:
বুদ্ধের মতে, আমাদের অতীত নিয়ে চিন্তা করা উচিত নয়, ভবিষ্যতের স্বপ্ন দেখাও উচিত নয় বরং সর্বদা নিজের বর্তমানের উপর মন কেন্দ্রীভূত করা উচিত।

এটিই একমাত্র উপায় যা থেকে আমরা দুঃখ, উদ্বেগ থেকে মুক্তি পেতে পারব এবং শান্তিও পেতে পারব জীবনে |

এই বিচারটি আমাদের সবার ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য | আমরা প্রায়ই প্রত্যেকেই অতীতের খারাপ স্মৃতির জন্য কাঁদতে থাকি বা দুঃখ প্রকাশ করি এবং ভবিষ্যতের অতিরিক্ত চিন্তা করতেই থাকি এরফলে আমরা নিজেদের অজান্তেই আমাদের বর্তমানকে নষ্ট করে ফেলি।

এই কথাটা একদম সত্য যে, যদি আমরা আমাদের বর্তমানকে আজ উন্নত করার পিছনে পরিশ্রম করি তাহলে অনায়াসেই আমাদের ভবিষ্যত একদিন ঠিক হয়ে যাবে এবং অতীতের সব দুঃখ তখন ঘুঁচেও যাবে |

শান্ত থাকুন:
যেটা জীবনে অর্জন করেছি সেটা অন্যের কাছে বেশি জাহির করার চেষ্টা করা বা তার জন্য অন্যকে ইর্ষাও করা একদম ঠিক নয় | যেই মানুষ অন্যদের দেখে হিংসা করে বা ইর্ষা করে তার মন কখনই ভিতর থেকে শান্ত হয়না |

হিংসার আগুন তাকে সর্বদা ভিতর থেকে জ্বালাতে থাকে | তাই নিজে খুশি থাকো এবং অপরকেও খুশিতে থাকতে দেও |

সর্বদা মনে রাখবে যে মানুষ, অন্যদের ঘৃনা করে সে কখনই নিজেও সুখী হতে পারেনা, সর্বদা সে দুঃখীই থাকে |

ভালো সঙ্গীদের মাঝে থাকুন:
মহাত্মা গৌতম বুদ্ধের মতে, জীবনে সফল কিংবা সুখী থাকতে গেলে আমাদের অবশ্যই ভালো সঙ্গের সাথে মেলামেশা করা উচিত | যেমন আমাদের সঙ্গীদের ব্যবহার হবে ঠিক তেমনই আমাদেরও ব্যবহার হবে |

তাছাড়া একটি খারাপ বন্ধু, বনের হিংস্র পশু-পাখিদের মতই, ভয়ঙ্কর হতে পারে কারণ এই ধরনের বন্ধুদের সাথে মেলামেশা করা, নিজের জীবনের ঝুঁকি  নেওয়ার মতই সমান |

তাই আজ থেকেই পারলে খারাপ বন্ধু বা মানুষজনের সঙ্গ ত্যাগ করো তাড়াতাড়ি

ধৈর্য ধরুন:
জীবনে যদি কেউ সফল হতে চায়, তাহলে তাঁকে ধৈর্য ধরা শিখতে হবে | সর্বদা এটা মনে রাখতে হবে যে, বিন্দু বিন্দু জলকণার দাড়ায় কিন্তু সমুদ্রের জল পূর্ণ হয় |

তাই সর্বদা ইতিবাচক থাকতে হবে এবং ধৈর্যের সাথে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে | এইভাবেই তুমি যা চাও একদিন তাই পাবে |

বর্তমান যুগে বেশিরভাগ Young Generation-এর ছেলে-মেয়েরা আজ সফলতাকে সঙ্গে সঙ্গে পেতে চায় বিনা পরিশ্রম করেই, যেটা কিন্তু কোনদিনই সম্ভব নয় | কারণ সফলতা পেতে গেলে যেকোনো মানুষকেই নিজের মূল্যবান সময় ব্যয় করতেই হয় এবং সেই সাথে Struggle করতেও হয় | রাতারাতি কেউ সফল হয়নি আর কেউ সফল হবেও না |

নিজের উপর নিয়ন্ত্রণ রাখুন:
যেই মানুষের নিয়ন্ত্রণ নিজের উপর যত বেশি, সে ততই তার জীবনকে ভালোভাবে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারবে | রাগ হচ্ছে এমনই একটি জিনিস যা মানুষের চিন্তাশক্তিকে নিমেষের মধ্যে বিদ্ধস্ত করে দিতে পারে  এবং সেই সময় আমরা এমন এক ধরনের ভুল করে দিতে পারি, যার ফল স্বরূপ অনুশোচনা আমাদের সারা জীবন করতে হতে পারে |

এই কারণেই প্রত্যেক মানুষকে নিজেদের মন ও মস্তিষ্কের উপর নিয়ন্ত্রণ  রাখা শিখতে হবে | ধ্যান বা মেডিটেশন করার মাধ্যমে আমরা কিছুদিনের মধ্যেই তা করতে পারি অতি সহজেই | কিন্তু তার জন্য অবশ্যই আমাদের সারাদিনে অন্তত ১০ মিনিট সময় বার করতেই হবে, যাতে আমরা সেইসব করতে পারি |

বন্ধুরা এই ছিলো গৌতম বুদ্ধের ৯টি উপদেশ, যেটি খুব ভালোভাবে মেনে চললে যে কেউ একটি সুন্দর এবং সুখী জীবন পেতে পারে | তাই আর দেরী না করে আজ থেকেই বুদ্ধের এই মূল্যবান উপদেশগুলি মেনে চলা শুরু করে দেও |


আর্টিকেলটি যদি আপনাদের পড়ে ভালো লেগে থাকে তাহলে COMMENT করে আপনাদের মতামত আমায় অবশ্যই জানাবেন | আর আপনি যদি চান নিজের লেখা কবিতা ও ভ্রমন গল্প আমাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত করতে, তাহলে এখানে ক্লিক করুন |

এতক্ষণ সময় দিয়ে পড়ার জন্যে আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই Ajob Rahasya Bolg-এর পক্ষ থেকে |

Read More:-
*কনফুসিয়াসের মহান কিছু উক্তি
*বারাক ওবামার কিছু মহান উক্তি

About the author

admin

Hi Readers I’m Bebeto Raha, a Professional Youtuber & a blogger from Kolkata. My hobby is Playing Guitar, Making Youtube Videos, Watching Films. Also I love to read any kinds of knowledgeable book written by any good author.

View all posts